Monday , February 26 2024

হা-মীম সেজদাহ্ বা ফুস্সিলাত

শ্রেণীঃ মাক্কী
নামের অর্থঃ (সুস্পষ্ট বিবরণ)
সূরার ক্রমঃ ৪১
আয়াতের সংখ্যাঃ ৫৪

← পূর্ববর্তী সূরা সূরা আল-মু’মিন
পরবর্তী সূরা → সূরা আশ্‌-শূরা

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ
আরবি উচ্চারণ বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম বাংলা অনুবাদ পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি। حم41.1 আরবি উচ্চারণ ৪১.১। হা-মী-ম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১ হা-মীম। تَنْزِيلٌ مِنَ الرَّحْمَنِ الرَّحِيمِ41.2 আরবি উচ্চারণ ৪১.২। তান্যী লুম্ মির্না রহমা-নির রহীম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২ (এ গ্রন্থ) পরম করুণাময় অসীম দয়ালুর পক্ষ থেকে নাযিলকৃত। كِتَابٌ فُصِّلَتْ آيَاتُهُ قُرْآنًا عَرَبِيًّا لِقَوْمٍ يَعْلَمُونَ41.3 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩। কিতাবুন্ ফুছ্ছিলাত্ আ-ইয়া-তুহূ কর্আ-নান্ ‘আরবিয়্যাল্ লিক্বওমিইঁ ইয়া’লামূ ন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩ এমন এক কিতাব, যার আয়াতগুলো জ্ঞানী কওমের জন্য বিশদভাবে বর্ণনা করা হয়েছে, কুরআনরূপে আরবী ভাষায়। بَشِيرًا وَنَذِيرًا فَأَعْرَضَ أَكْثَرُهُمْ فَهُمْ لَا يَسْمَعُونَ41.4 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪। বাশীরাঁও অ নাযীরান্ ফা‘আরদ্বোয়া আক্ছারুহুম্ ফাহুম্ লা-ইয়াস্ মা‘ঊন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪ সুসংবাদদাতা ও সতর্ককারী। অতঃপর তাদেও অধিকাংশই মখু ফিরিয়ে নিয়েছে, অতএব তারা শুনবে না। وَقَالُوا قُلُوبُنَا فِي أَكِنَّةٍ مِمَّا تَدْعُونَا إِلَيْهِ وَفِي آذَانِنَا وَقْرٌ وَمِنْ بَيْنِنَا وَبَيْنِكَ حِجَابٌ فَاعْمَلْ إِنَّنَا عَامِلُونَ41.5 আরবি উচ্চারণ ৪১.৫। অক্ব-লূ কুলূবুনা ফী য় আকিন্নাতিম্ মিম্মা-তাদ্ঊ’না য় ইলাইহি অফী য় আ-যা-নিনা অকরুঁও অ মিম্ বাইনিনা-অ বাইনিকা হিজ্বা-বুন্ ফা’মাল্ ইন্নানা- ‘আ-মিলূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৫ আর তারা বলে, ‘তুমি আমাদেরকে যার প্রতি আহ্বান করছ সে বিষয়ে আমাদের অন্তরসমূহ আচ্ছাদিত, আমাদের কানের মধ্যে রয়েছে বধিরতা আর তোমার ও আমাদের মধ্যে রয়েছে অন্তরায়। অতএব তুমি (তোমার) কাজ কর, নিশ্চয় আমরা (আমাদের) কাজ করব। قُلْ إِنَّمَا أَنَا بَشَرٌ مِثْلُكُمْ يُوحَى إِلَيَّ أَنَّمَا إِلَهُكُمْ إِلَهٌ وَاحِدٌ فَاسْتَقِيمُوا فَاسْتَقِيمُوا إِلَيْهِ وَاسْتَغْفِرُوهُ وَوَيْلٌ لِلْمُشْرِكِينَ41.6 আরবি উচ্চারণ ৪১.৬। কুল্ ইন্নামা য় আনা বাশারুম্ মিছ্লুকুম্ ইয়ূহা য় ইলাইয়া আন্নামা য় ইলা-হুকুম্ ইলা-হুঁও ওযা- হিদুন্ ফাস্তাক্বীমূ য় ইলাইহি অস্তাগ্ফিরূহ্; অ ওয়াইলু ল্লিল্ মুশ্রিকীন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৬ বল, ‘আমি কেবল তোমাদের মত একজন মানুষ। আমার কাছে ওহী পাঠানো হয় যে, তোমাদেও ইলাহ কেবলমাত্র এক ইলাহ। অতএব তোমরা তাঁর পথে দৃঢ়ভাবে অটল থাক এবং তাঁর কাছে ক্ষমা চাও’। আর মুশরিকদের জন্য ধ্বংস, الَّذِينَ لَا يُؤْتُونَ الزَّكَاةَ وَهُمْ بِالْآخِرَةِ هُمْ كَافِرُونَ41.7 আরবি উচ্চারণ ৪১.৭। আল্লাযীনা লা-ইয়ুতূনায্ যাকা-তা অহুম্ বিল্ আ-খিরতি হুম্ কা-ফিরূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৭ যারা যাকাত দেয় না। আর তারাই আখিরাতের অস্বীকারকারী। إِنَّ الَّذِينَ آمَنُوا وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ لَهُمْ أَجْرٌ غَيْرُ مَمْنُونٍ41.8 আরবি উচ্চারণ ৪১.৮। ইন্নাল্ লাযীনা আ-মানূ অ ‘আমিলুছ্ ছোয়া-লিহা-তি লাহুম্ আজরুন্ গইরু মাম্নূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৮ নিশ্চয় যারা ঈমান আনে এবং সৎকাজ করে তাদের জন্য রয়েছে নিরবচ্ছিন ড়ব প্রতিদান। قُلْ أَئِنَّكُمْ لَتَكْفُرُونَ بِالَّذِي خَلَقَ الْأَرْضَ فِي يَوْمَيْنِ وَتَجْعَلُونَ لَهُ أَنْدَادًا ذَلِكَ رَبُّ الْعَالَمِينَ41.9 আরবি উচ্চারণ ৪১.৯। কুল্ আয়িন্নাকুম্ লাতাক্ফুরূনা বিল্লাযী খলাক্বল্ র্আদ্বোয়া ফী ইয়াওমাইনি অতাজ‘আলূনা লাহূ য় আন্দা-দা; যা- লিকা রব্বুল্ ‘আ-লামীন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৯ বল, ‘তোমরা কি তাঁকে অস্বীকার করবে যিনি দু দিনে যমীন সৃষ্টি করেছেন? আর তোমরা কি তাঁর সমকক্ষ বানাতে চাচ্ছ? তিনিই সৃষ্টিকুলের রব’। وَجَعَلَ فِيهَا رَوَاسِيَ مِنْ فَوْقِهَا وَبَارَكَ فِيهَا وَقَدَّرَ فِيهَا أَقْوَاتَهَا فِي أَرْبَعَةِ أَيَّامٍ سَوَاءً لِلسَّائِلِينَ 41.10 আরবি উচ্চারণ ৪১.১০। অ জ্বা‘আলা ফীহা-রাওয়া- সিয়া মিন্ ফাওক্বিহা- অ বা-রকা ফীহা-অক্বদ্দারা ফীহা য় আকঅ ওয়া- তাহা-ফী য় র্আবা‘আতি আইয়্যা-ম্; সাওয়া-য়াল্ লিস্সা-য়িলীন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১০ আর তার উপরিভাগে তিনি দৃঢ় পর্বতমালা স্থাপন করেছেন এবং তাতে বরকত দিয়েছেন, আর তাতে চারদিনে প্রার্থীদের জন্য সমভাবে খাদ্য নিরূপণ করে দিয়েছেন। ثُمَّ اسْتَوَى إِلَى السَّمَاءِ وَهِيَ دُخَانٌ فَقَالَ لَهَا وَلِلْأَرْضِ اِئْتِيَا طَوْعًا أَوْ كَرْهًا قَالَتَا أَتَيْنَا طَائِعِينَ41.11 আরবি উচ্চারণ ৪১.১১। ছুম্মাস্ তাওয়া য় ইলাস্ সামা-য়ি অহিয়া দুখা-নুন্ ফাক্ব-লা লাহা-অলিল্ র্আদ্বি তিইয়া- ত্বোয়াও‘আন্ আও র্কাহা-; ক্ব-লাতা য় আতাইনা- ত্বোয়া-য়ি‘ঈন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১১ তারপর তিনি আসমানের দিকে মনোনিবেশ করেন। তা ছিল ধোঁয়া। তারপর তিনি আসমান ও যমীনকে বললেন, ‘তোমরা উভয়ে স্বেচ্ছায় অথবা অনিচ্ছায় আস’। তারা উভয়ে বলল, ‘আমরা অনগু ত হয়ে আসলাম’। فَقَضَاهُنَّ سَبْعَ سَمَاوَاتٍ فِي يَوْمَيْنِ وَأَوْحَى فِي كُلِّ سَمَاءٍ أَمْرَهَا وَزَيَّنَّا السَّمَاءَ الدُّنْيَا بِمَصَابِيحَ وَحِفْظًا ذَلِكَ تَقْدِيرُ الْعَزِيزِ الْعَلِيمِ41.12 আরবি উচ্চারণ ৪১.১২। ফাক্বাদ্বোয়া-হুন্না সাব্‘আ সামা-ওয়া-তিন্ ফী ইওয়ামাইনি অআওহা-ফী কুল্লি সামা-য়িন্ আম্রহা-; অযাইয়্যান্নাস্ সামা-য়াদ্ দুন্ইয়া-বিমাছোয়া-বীহা অহিফ্জোয়া-; যা- লিকা তাক্দীরুল্ ‘আযীযিল্ ‘আলীম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১২ তারপর তিনি দু দিনে আসমানসমূহকে সাত আসমানে পরিণত করলেন। আর প্রত্যেক আসমানে তার কার্যাবলী ওহীর মাধ্যমে জানিয়ে দিলেন। আর আমি নিকটবর্তী আসমানকে প্রদীপমালার দ্বারা সুসজ্জিত করেছি আর সুরক্ষিত করেছি। এ হল মহা পরাসমশালী সর্বজ্ঞের নির্ধারণ। فَإِنْ أَعْرَضُوا فَقُلْ أَنْذَرْتُكُمْ صَاعِقَةً مِثْلَ صَاعِقَةِ عَادٍ وَثَمُودَ41.13 আরবি উচ্চারণ ৪১.১৩। ফাইন্ আ’রাদু ফাকুল্ আর্ন্যাতুকুম্ ছোয়া-‘ইক্বতাম্ মিছ্লা ছোয়া-‘ইক্বতি ‘আ-দিঁও অছামূদ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১৩ তবও যদি তারা মখু ফিরিয়ে নেয় তাহলে তুমি বলে দাও, ‘আদ ও সামূদের ধ্বংসের মতই এক মহাধ্বংস সম্পকের্ আমি তোমাদেরকে সতক করছি’। إِذْ جَاءَتْهُمُ الرُّسُلُ مِنْ بَيْنِ أَيْدِيهِمْ وَمِنْ خَلْفِهِمْ أَلَّا تَعْبُدُوا إِلَّا اللَّهَ قَالُوا لَوْ شَاءَ رَبُّنَا قَالُوا لَوْ شَاءَ رَبُّنَا لَأَنْزَلَ مَلَائِكَةً فَإِنَّا بِمَا أُرْسِلْتُمْ بِهِ كَافِرُونَ41.14 আরবি উচ্চারণ ৪১.১৪। ইয্ জ্বা-য়াত্হুর্মু রুসুলূ মিম্ বাইনি আইদীহিম্ অমিন্ খল্ফিহিম্ আল্লা তা’বুদূ য় ইল্লাল্লা-হ্; ক্ব-লূ লাও শা-য়া রব্বুনা-লাআন্যালা মালা-য়িকাতান্ ফাইন্না বিমা য় র্উসিল্তুম্ বিহী কা-ফিরূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১৪ যখন তাদের অগ্র ও পশ্চাৎ থেকে রাসূলগণ তাদেও কাছে এসে বলেছিল যে, ‘তোমরা আল্লাহ ছাড়া কারো ইবাদাত করো না’। তারা বলেছিল, ‘যদি আমাদের রব ইচ্ছা করতেন তাহলে অবশ্যই ফেরেশতা নাযিল করতেন। অতএব, তোমাদেরকে যা দিয়ে পাঠানো হয়েছে নিশ্চয় আমরা তা প্রত্যাখ্যান করলাম। فَأَمَّا عَادٌ فَاسْتَكْبَرُوا فِي الْأَرْضِ بِغَيْرِ الْحَقِّ وَقَالُوا مَنْ أَشَدُّ مِنَّا قُوَّةً أَوَلَمْ يَرَوْا أَنَّ اللَّهَ الَّذِي خَلَقَهُمْ هُوَ أَشَدُّ مِنْهُمْ قُوَّةً وَكَانُوا بِآيَاتِنَا يَجْحَدُونَ41.15 আরবি উচ্চারণ ৪১.১৫। ফাআম্মা- ‘আদুন্ ফাস্তাক্বারূ ফিল্ র্আদ্বি বিগইরিল্ হাকক্বি অক্ব-লূ মান্ আশাদ্দু মিন্না-কুওয়্যাহ্; আওয়ালাম্ ইয়ারাও আন্নাল্লা-হাল্ লাযী খলাক্বহুম্ হুওয়া আশাদ্দু মিন্হুম্ কুওয়্যাহ্; অকা-নূ বিআ-ইয়া-তিনা- ইয়াজহাদূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১৫ আর ‘আদ সম্প্রদায়, তারা যমীনে অযথা অহঙ্কার করত এবং বলত, ‘আমাদের চেয়ে অধিক শক্তিশালী কে আছে’? তবে কি তারা লক্ষ্য করেনি যে, নিশ্চয় আল্লাহ যিনি তাদেরকে সৃষ্টি করেছেন তাদের চেয়ে অধিক শক্তিশালী? আর তারা আমার আয়াতগুলোকে অস্বীকার করত। فَأَرْسَلْنَا عَلَيْهِمْ رِيحًا صَرْصَرًا فِي أَيَّامٍ نَحِسَاتٍ لِنُذِيقَهُمْ عَذَابَ الْخِزْيِ فِي الْحَيَاةِ الدُّنْيَا وَلَعَذَابُ الْآخِرَةِ أَخْزَى وَهُمْ لَا يُنْصَرُونَ 41.16 আরবি উচ্চারণ ৪১.১৬। ফার্আসাল্না- ‘আলাইহিম্ রীহান্ ছোর্য়া ছোয়ারান্ ফী য় আইয়্যা- মিন্ নাহিসাতিল্ লিনুযীক্বহুম্ ‘আযা-বাল্ খিয্ইয়ি ফীল্হাইয়া-তিদ্ দুন্ইয়া-; অ লা‘আযা-বুল্ আ-খিরতি আখ্যা-অহুম্ লা-ইয়ুন্ছোয়ারূন্ বাংলা অনুবাদ ৪১.১৬ তারপর আমি তাদের উপর অশুভ দিনগুলোতে ঝঞ্ঝাবায়ু পাঠালাম যাতে তাদেরকে দুনিয়ার জীবনে লাঞ্ছনাদায়ক আযাব আস্বাদন করাতে পারি। আর আখিরাতের আযাব তো অধিকতর লাঞ্ছনাদায়ক এবং তাদেরকে সাহায্য করা হবে না। وَأَمَّا ثَمُودُ فَهَدَيْنَاهُمْ فَاسْتَحَبُّوا الْعَمَى عَلَى الْهُدَى فَأَخَذَتْهُمْ صَاعِقَةُ الْعَذَابِ الْهُونِ بِمَا كَانُوا يَكْسِبُونَ41.17 আরবি উচ্চারণ ৪১.১৭। অ আম্মা-ছামূদু ফাহাদাইনা-হুম্ ফাস্তাহাব্বুল্ ‘আমা-‘আলাল্ হুদা-ফাআখাযাত্হুম্ ছোয়া-‘ইক্বতুল্ ‘আযা-বিল্ হূনি বিমা-কা-নূ ইয়াক্সিবূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১৭ আর সামূদ সম্প্রদায়, আমি তাদেরকে সঠিক পথের নির্দেশনা দিয়েছিলাম; কিš ‘ তারা সঠিক পথে চলার পরিবতের্ অন্ধ পথে চলাই পছন্দ করেছিল। ফলে তাদের অর্জনের কারণেই লাঞ্ছনাদায়ক আযাবের বজ্রাঘাত তাদেরকে পাকড়াও করল। وَنَجَّيْنَا الَّذِينَ آمَنُوا وَكَانُوا يَتَّقُونَ41.18 আরবি উচ্চারণ ৪১.১৮। অ নাজ্জ্বাইনাল্ লাযীনা আ-মানূ অকা-নূ ইয়াত্তাকুন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১৮ আর আমি তাদেরকে রক্ষা করলাম যারা ঈমান এনেছিল এবং তাকওয়া অবলম্বন করত। وَيَوْمَ يُحْشَرُ أَعْدَاءُ اللَّهِ إِلَى النَّارِ فَهُمْ يُوزَعُونَ41.19 আরবি উচ্চারণ ৪১.১৯। অ ইয়াওমা ইয়ুহ্শারু আ-দা-য়ু ল্লা- হি ইলান্নারি ফাহুম্ ইয়ূযা‘ঊন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.১৯ আর যেদিন আল্লাহর দুশমনদেরকে আগুনের দিকে সমবেত করা হবে তখন তাদেরকে বিভিন ড়ব দলে বিন্যস্ত করা হবে। حَتَّى إِذَا مَا جَاءُوهَا شَهِدَ عَلَيْهِمْ سَمْعُهُمْ وَأَبْصَارُهُمْ وَجُلُودُهُمْ بِمَا كَانُوا يَعْمَلُونَ41.20 আরবি উচ্চারণ ৪১.২০। হাত্তা য় ইযা -মা-জ্বা-য়ূহা-শাহিদা ‘আলাইহিম্ সাম্‘উহুম্ অআব্ছোয়া-রুহুম্ অ জুলূদুহুম্ বিমা-কা-নূ ইয়া’মালূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২০ অবশেষে তারা যখন জাহানড়বামের কাছে পৌঁছবে, তখন তাদের কান, তাদের চোখ ও তাদের চামড়া তাদের বিরুদ্ধে তাদের কৃতকমর্ সম্পকের্ সাক্ষ্য দেবে। وَقَالُوا لِجُلُودِهِمْ لِمَ شَهِدْتُمْ عَلَيْنَا قَالُوا أَنْطَقَنَا اللَّهُ الَّذِي أَنْطَقَ كُلَّ شَيْءٍ وَهُوَ خَلَقَكُمْ أَوَّلَ مَرَّةٍ وَإِلَيْهِ تُرْجَعُونَ 41.21 আরবি উচ্চারণ ৪১.২১। অ ক্ব-লূ লিজুলূদিহিম্ লিমা-শাহিত্তুম্ ‘আলাইনা-; ক্ব-লূ য় আন্ত্বোয়াক্বনা ল্লা- হুল্ লাযী য় আন্ত্বোয়াক্ব কুল্লা শাইয়িঁও অহুওয়া খলাক্বকুম্ আওয়্যালা র্মারতিঁও অইলাইহি র্তুজ্বা‘ঊন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২১ আর তারা তাদের চামড়াগুলোকে বলবে, ‘কেন তোমরা আমাদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিলে’? তারা বলবে, ‘আল্লাহ আমাদের বাকশক্তি দিয়েছেন যিনি সবকিছুকে বাকশক্তি দিয়েছেন। তিনি তোমাদেরকে প্র মবার সৃষ্টি করেছেন এবং তাঁরই প্রতি তোমরা প্রত্যাবর্তিত হবে।’ وَمَا كُنْتُمْ تَسْتَتِرُونَ أَنْ يَشْهَدَ عَلَيْكُمْ سَمْعُكُمْ وَلَا أَبْصَارُكُمْ وَلَا جُلُودُكُمْ وَلَكِنْ ظَنَنْتُمْ أَنَّ اللَّهَ لَا يَعْلَمُ كَثِيرًا مِمَّا تَعْمَلُونَ41.22 আরবি উচ্চারণ ৪১.২২। অমা-কুন্তুম্ তাস্তাতিরূনা আইঁ ইয়াশ্হাদা ‘আলাইকুম্ সাম্উ’কুম্ অলা য় আব্ছোয়া-রুকুম্ অলা- জুলূদুকুম্ অলা- কিন্ জোয়ানান্তুম্ আন্না ল্লা-হা লা-ইয়া’লামু কাছীরাম্ মিম্মা-তা’মালূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২২ তোমরা কিছুই গোপন করতে না এই বিশ্বাসে যে, তোমাদের কান, চোখসমূহ ও চামড়াসমূহ তোমাদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবে না, বরং তোমরা মনে করেছিলে যে, তোমরা যা কিছু করতে আল্লাহ তার অনেক কিছুই জানেন না। وَذَلِكُمْ ظَنُّكُمُ الَّذِي ظَنَنْتُمْ بِرَبِّكُمْ أَرْدَاكُمْ فَأَصْبَحْتُمْ مِنَ الْخَاسِرِينَ41.23 আরবি উচ্চারণ ৪১.২৩। অ যা-লিকুম্ জোয়ান্নু কুমুল্লাযী জোয়ানান্তুম্ বিরব্বিকুম্ র্আদা-কুম্ ফাআছ্বাহ্তুম্ মিনাল্ খ-সিরীন্ বাংলা অনুবাদ ৪১.২৩ আর তোমাদের এ ধারণা যা তোমরা তোমাদেও রব সম্পকে পোষণ করতে, তাই তোমাদের ধ্বংস করেছে। ফলে তোমরা ক্ষতিগ্রস্তদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে গেলে। فَإِنْ يَصْبِرُوا فَالنَّارُ مَثْوًى لَهُمْ وَإِنْ يَسْتَعْتِبُوا فَمَا هُمْ مِنَ الْمُعْتَبِينَ41.24 আরবি উচ্চারণ ৪১.২৪। ফাইঁ ইয়াছ্বিরু ফান্না-রু মাছ্ওয়াল্ লাহুম্ অইঁ ইয়াস্তা’তিবূ ফামা-হুম্ মিনাল্ মু’তাবীন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২৪ অতঃপর যদি তারা ধৈযর্ধারণ করে তবে আগুনই হবে তাদের আবাস এবং যদি তারা আল্লাহকে সন্তুষ্ট করতে চায়, তবও তারা আল্লাহর সন্তোষপ্রাপ্তদের অন্তর্ভুক্ত হবে না। وَقَيَّضْنَا لَهُمْ قُرَنَاءَ فَزَيَّنُوا لَهُمْ مَا بَيْنَ أَيْدِيهِمْ وَمَا خَلْفَهُمْ وَحَقَّ عَلَيْهِمُ الْقَوْلُ وَحَقَّ عَلَيْهِمُ الْقَوْلُ فِي أُمَمٍ قَدْ خَلَتْ مِنْ قَبْلِهِمْ مِنَ الْجِنِّ وَالْإِنْسِ إِنَّهُمْ كَانُوا خَاسِرِينَ41.25 আরবি উচ্চারণ ৪১.২৫। অ ক্বইইয়াদ্ব্না-লাহুম্ কুরনা-য়া ফাযাইয়ানূ লাহুম্ মা- বাইনা আইদীহিম্ অমা- খল্ফাহুম্ অহাকক্ব ‘আলাইহিমুল্ ক্বওলু ফী য় উমামিন্ ক্বদ্ খলাত্ মিন্ ক্বব্লিহিম্ মিনাল্ জ্বিন্নি অল্ ইন্সি ইন্নাহুম্ কা-নূ খ-সিরীন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২৫ আর আমি তাদের জন্য মন্দ সহচরবৃন্দ নির্ধারণ করে দিয়েছিলাম, যারা তাদের সামনে ও পিছনে যা আছে তা তাদের দৃষ্টিতে চাকচিক্যময় করে দিয়েছিল। আর তাদের উপরে আযাবের বাণী সত্যে পরিণত হল, তাদের পূবের্ গত হওয়া জিন ও মানুষের বিভিন ড়ব জাতির ন্যায়, নিশ্চয় এরা ছিল ক্ষতিগ্রস্ত। وَقَالَ الَّذِينَ كَفَرُوا لَا تَسْمَعُوا لِهَذَا الْقُرْآنِ وَالْغَوْا فِيهِ لَعَلَّكُمْ تَغْلِبُونَ41.26 আরবি উচ্চারণ ৪১.২৬। অ ক্ব- লাল্ লাযীনা কাফারূ লা-তাস্মা‘ঊ লিহা-যাল্ ক্বর্ আ-নি অল্গও ফীহি লা‘আল্লাকুম্ তাগ্লিবূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২৬ আর কাফিররা বলে, ‘তোমরা এ কুরআনের নির্দেশ শুন না এবং এর আবৃত্তি কালে শোরগোল সৃষ্টি কর, যেন তোমরা জয়ী হতে পার।’ فَلَنُذِيقَنَّ الَّذِينَ كَفَرُوا عَذَابًا شَدِيدًا وَلَنَجْزِيَنَّهُمْ أَسْوَأَ الَّذِي كَانُوا يَعْمَلُونَ41.27 আরবি উচ্চারণ ৪১.২৭। ফালানুযী ক্বান্না ল্ লাযীনা কাফারূ ‘আযা-বান্ শাদীদাঁও অলা-নাজযিইয়ান্নাহুম্ আস্ওয়াল্ লাযী কা-নূ ইয়া’মালূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২৭ সুতরাং আমি অবশ্যই কাফিরদেরকে কঠিন আযাব আস্বাদন করাব এবং আমি অবশ্যই তাদের কাজের নিকৃষ্টতম প্রতিদান দেব। ذَلِكَ جَزَاءُ أَعْدَاءِ اللَّهِ النَّارُ لَهُمْ فِيهَا دَارُ الْخُلْدِ جَزَاءً بِمَا كَانُوا بِآيَاتِنَا يَجْحَدُونَ 41.28 আরবি উচ্চারণ ৪১.২৮। যা-লিকা জ্বাযা-য়ু আ’দা-য়ি ল্লা-হিন্ না- রু লাহুম্ ফীহা-দারুল্ খুল্দ; জ্বাযা-য়াম্ বিমা- কা-নূ বিআ-ইয়া-তিনা- ইয়াজহাদূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২৮ এই আগুন, আল্লাহর দুশমনদের প্রতিদান। সেখানে থাকবে তাদের জন্য স্থায়ী নিবাস তারা যে আমার আয়াতসমূহ অস্বীকার করত তারই প্রতিফলস্বরূপ। وَقَالَ الَّذِينَ كَفَرُوا رَبَّنَا أَرِنَا الَّذَيْنِ أَضَلَّانَا مِنَ الْجِنِّ وَالْإِنْسِ نَجْعَلْهُمَا تَحْتَ أَقْدَامِنَا لِيَكُونَا مِنَ الْأَسْفَلِينَ41.29 আরবি উচ্চারণ ৪১.২৯। অক্ব-লাল্লাযীনা কাফারূ রব্বানা য় আরিনাল্ লাযাইনি আদ্বোয়াল্লা-না- মিনাল্ জ্বিন্নি অল্ইন্সি না‘জ্ব্আল্হুমা-তাহ্তা আক্ব্দা-মিনা- লিইয়াকূনা মিনাল্ আস্ফালীন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.২৯ আর কাফিররা বলবে, ‘হে আমাদের রব, জিন ও মানুষের মধ্যে যারা আমাদেরকে পথভ্রষ্ট করেছে তাদেরকে আমাদের দেখিয়ে দিন। আমরা তাদেও উভয়কে আমাদের পায়ের নীচে রাখব, যাতে তারা নিকৃষ্টদের অন্তর্ভুক্ত হয়। إِنَّ الَّذِينَ قَالُوا رَبُّنَا اللَّهُ ثُمَّ اسْتَقَامُوا تَتَنَزَّلُ عَلَيْهِمُ الْمَلَائِكَةُ أَلَّا تَخَافُوا وَلَا تَحْزَنُوا وَأَبْشِرُوا بِالْجَنَّةِ الَّتِي كُنْتُمْ تُوعَدُونَ41.30 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩০। ইন্নাল্ লাযীনা ক্ব-লূ রব্বুনাল্লা-হু ছুম্মাস্ তাক্ব-মূ তাতানায্যালু ‘আলাইহিমুল্ মালা-য়িকাতু আল্লা-তাখ -ফূ অলা-তাহ্যানূ অআব্শিরূ বিল্জ্বান্নাতিল্লাতী কুন্তুম্ তূ আ’দূ ন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩০ নিশ্চয় যারা বলে, ‘আল্লাহই আমাদের রব’ অতঃপর অবিচল থাকে, ফেরেশতারা তাদের কাছে নাযিল হয় (এবং বলে,) ‘তোমরা ভয় পেয়ো না, দুশ্চিন্তা করো না এবং সেই জানড়বাতের সুসংবাদ গ্রহণ কর তোমাদেরকে যার ওয়াদা দেয়া হয়েছিল’। نَحْنُ أَوْلِيَاؤُكُمْ فِي الْحَيَاةِ الدُّنْيَا وَفِي الْآخِرَةِ وَلَكُمْ فِيهَا مَا تَشْتَهِي أَنْفُسُكُمْ وَلَكُمْ فِيهَا مَا تَدَّعُونَ41.31 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩১। নাহ্নু আও লিয়া-য়ুকুম্ ফীল্ হাইয়া-তিদ্দুন্ইয়া-অ ফীল আ- খিরতি অলাকুম্ ফীহা-মা-তাশ্তাহী য় আন্ফুসুকুম্ অলাকুম্ ফীহা- মা-তাদ্দা‘ঊন্ বাংলা অনুবাদ ৪১.৩১ ‘আমরা দুনিয়ার জীবনে তোমাদের বন্ধ এবং আখিরাতেও। সেখানে তোমাদের জন্য থাকবে যা তোমাদের মন চাইবে এবং সেখানে তোমাদেও জন্য আরো থাকবে যা তোমরা দাবী করবে। نُزُلًا مِنْ غَفُورٍ رَحِيمٍ 41.32 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩২। নুযুলাম্ মিন্ গফূর্রি রহীম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩২ পরম ক্ষমাশীল ও অসীম দয়ালু আল্লাহর পক্ষ থেকে আপ্যায়নস্বরূপ। وَمَنْ أَحْسَنُ قَوْلًا مِمَّنْ دَعَا إِلَى اللَّهِ وَعَمِلَ صَالِحًا وَقَالَ إِنَّنِي مِنَ الْمُسْلِمِينَ41.33 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩৩। অমান্ আহ্সানু ক্বওলাম্ মিম্মান্ দা‘আ য় ইলাল্লা-হি অ‘আমিলা ছোয়া- লিহাঁও অ ক্ব-লা ইন্নানী মিনাল্ মুস্লিমীন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩৩ আর তার চেয়ে কার কথা উত্তম, যে আল্লাহর দিকে দাওয়াত দেয়, সৎকমর্ করে এবং বলে, অবশ্যই আমি মুসলিমদের অন্তর্ভুক্ত’? وَلَا تَسْتَوِي الْحَسَنَةُ وَلَا السَّيِّئَةُ ادْفَعْ بِالَّتِي هِيَ أَحْسَنُ فَإِذَا الَّذِي بَيْنَكَ وَبَيْنَهُ عَدَاوَةٌ كَأَنَّهُ وَلِيٌّ حَمِيمٌ41.34 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩৪। অলা-তাস্কাওয়িল্ হাসানাতু অলাস্ সাইয়্যিয়াহ্; ইদ্ফা’ বিল্লাতী হিয়া আহ্সানু ফাইযাল্ লাযী বাইনাকা অবাইনাহূ ‘আদা-ওয়াতুন্ কায়ান্নাহূ অলিয়্যুন হামীম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩৪ আর ভাল ও মন্দ সমান হতে পারে না। মন্দকে প্রতিহত কর তা দ্বারা যা উৎকৃষ্টতর, ফলে তোমার ও যার মধ্যে শত্র“তা রয়েছে সে যেন হয়ে যাবে তোমার অন্তরঙ্গ বন্ধ।ু وَمَا يُلَقَّاهَا إِلَّا الَّذِينَ صَبَرُوا وَمَا يُلَقَّاهَا إِلَّا ذُو حَظٍّ عَظِيمٍ41.35 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩৫। অমা-ইয়ুলাকক্ব-হা য় ইল্লাল্ লাযীনা ছবারূ অমা- ইয়ুলাক্বক্ব্-হা য় ইল্লা-যূ হাজ্জিন্ ‘আজীম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩৫ আর এটি তারাই প্রাপ্ত হবে যারা ধৈযর্ধারণ করবে, আর এর অধিকারী কেবল তারাই হয় যারা মহাভাগ্যবান। وَإِمَّا يَنْزَغَنَّكَ مِنَ الشَّيْطَانِ نَزْغٌ فَاسْتَعِذْ بِاللَّهِ إِنَّهُ هُوَ السَّمِيعُ الْعَلِيمُ41.36 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩৬। অ ইম্মা-ইয়ান্যাগন্নাকা মিনাশ্ শাইত্বোয়া-নি নায্গুন্ ফাস্তা‘ইয্ বিল্লা-হ্; ইন্নাহূ হুওয়াস্ সামী‘উল্ ‘আলীম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩৬ আর যদি শয়তানের পক্ষ থেকে কোন কুমন্ত্রণা কখনো তোমাকে প্ররোচিত করে, তাহলে তুমি আল্লাহর নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করবে। নিশ্চয়ই তিনি সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞাতা। وَمِنْ آيَاتِهِ اللَّيْلُ وَالنَّهَارُ وَالشَّمْسُ وَالْقَمَرُ لَا تَسْجُدُوا لِلشَّمْسِ وَلَا لِلْقَمَرِ وَاسْجُدُوا لِلَّهِ الَّذِي خَلَقَهُنَّ إِنْ كُنْتُمْ إِيَّاهُ تَعْبُدُونَ41.37 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩৭। অ মিন্ আ-ইয়া-তিহি ল্লাইলু অন্নাহা-রু অশ্ শাম্সু অল্ ক্বর্মা; লা- তাস্জ্বুদূ লিশ্শাম্সি অলা-লিল্ক্বমারি অস্জ্বুদূ লিল্লা-হিল্ লাযী খলাক্বহুন্না ইন্ কুন্তুম্ ইয়্যা-হু তা’বুদূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩৭ আর তাঁর নিদর্শনসমূহের মধ্যে রয়েছে রাত ও দিন, সূযর্ ও চাঁদ । তোমরা না সূর্যকে সিজদা করবে, না চাঁদকে। আর তোমরা আল্লাহকে সিজদা কর যিনি এগুলো সৃষ্টি করেছেন, যদি তোমরা কেবলমাত্র তাঁরই ইবাদাত কর। فَإِنِ اسْتَكْبَرُوا فَالَّذِينَ عِنْدَ رَبِّكَ يُسَبِّحُونَ لَهُ بِاللَّيْلِ وَالنَّهَارِ وَهُمْ لَا يَسْأَمُونَ41.38 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩৮। ফায়িনিস্ তাক্বারূ ফাল্লাযীনা ‘ইন্দা রব্বিকা ইয়ুসাব্বিহূনা লাহূ বিল্লাইলি অন্নাহা-রি অহুম্ লা-ইয়াস্য়ামূন্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩৮ অতঃপর যদি এরা অহঙ্কার করেও তবে যারা তোমার রবের নিকটে রয়েছে তারা দিন-রাত তাঁরই তাসবীহ পাঠ করছে এবং তারা ক্লান্তি বোধ করে না। وَمِنْ آيَاتِهِ أَنَّكَ تَرَى الْأَرْضَ خَاشِعَةً فَإِذَا أَنْزَلْنَا عَلَيْهَا الْمَاءَ اهْتَزَّتْ وَرَبَتْ إِنَّ الَّذِي أَحْيَاهَا لَمُحْيِي الْمَوْتَى إِنَّهُ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ41.39 আরবি উচ্চারণ ৪১.৩৯। অমিন্ আ-ইয়া-তিহী য় আন্নাকা তারল্ র্আদ্বোয়া খ-শি‘আতান্ ফাইযা য় আন্যাল্না-‘আলাইহাল্ মা-য়াহ্ তায্যাত্ অ রবাত্; ইন্নাল লাযী য় আহ্ইয়া-হা -লামুহ্য়িল্ মাওতা-; ইন্নাহূ ‘আ লা-কুল্লি শাইয়িন্ ক্বর্দী। বাংলা অনুবাদ ৪১.৩৯ তাঁর আরেকটি নিদর্শন হল এই যে, তুমি যমীনকে দেখতে পাও শুষ্ক-অনুর্বর, অতঃপর যখন আমি তার উপর পানি বষর্ণ করি তখন তা আন্দোলিত ও স্ফীত হয়। নিশ্চয়ই যিনি যমীনকে জীবিত করেন তিনি মৃতদেরও জীবিতকারী। নিশ্চয় তিনি সব কিছুর উপর ক্ষমতাবান। إِنَّ الَّذِينَ يُلْحِدُونَ فِي آيَاتِنَا لَا يَخْفَوْنَ عَلَيْنَا أَفَمَنْ يُلْقَى فِي النَّارِ خَيْرٌ أَمْ مَنْ يَأْتِي آمِنًا يَوْمَ الْقِيَامَةِ اعْمَلُوا مَا شِئْتُمْ إِنَّهُ بِمَا تَعْمَلُونَ بَصِيرٌ41.40 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪০। ইন্নাল্লাযীনা ইয়ুল্হিদূনা ফী য় আ-ইয়া-তিনা-লা-ইয়াখ্ফাওনা ‘আলাইনা-; আফামাইঁ ইয়ুল্ক্ব-ফী ন্না-রি খইরুন্ আম্ মাইঁ ইয়াতী য় আ- মিনাইঁ ইয়াওমাল্ কিয়া-মাহ্; ‘ইমালূ মা- শিতুম্ ইন্নাহূ বিমা- তা’মালূনা বার্ছী। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪০ নিশ্চয় যারা আমার আয়াতসমূহ বিকৃত করে তারা আমার অগোচরে নয়। যে অগিড়বতে নিক্ষিপ্ত হবে সে কি উত্তম, না যে কিয়ামত দিবসে নিরাপদভাবে উপস্থিত হবে? তোমাদের যা ইচ্ছা আমল কর। নিশ্চয় তোমরা যা আমল কর তিনি তার সম্যক দ্রষ্টা। إِنَّ الَّذِينَ كَفَرُوا بِالذِّكْرِ لَمَّا جَاءَهُمْ وَإِنَّهُ لَكِتَابٌ عَزِيزٌ41.41 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪১। ইন্নাল্ লাযীনা কাফারূ বিয্যিক্রি লাম্মা জ্বা-য়া হুম্ অইন্নাহূ লাকিতা-বুন্ ‘আযীয্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪১ নিশ্চয় যারা উপদেশ [কুরআন] আসার পরও তা অস্বীকার করে [ তাদেরকে অবশ্যই এর পরিণাম ভোগ করতে হবে]। আর এটি নিশ্চয় এক সম্মানিত গ্রন্থ। لَا يَأْتِيهِ الْبَاطِلُ مِنْ بَيْنِ يَدَيْهِ وَلَا مِنْ خَلْفِهِ تَنْزِيلٌ مِنْ حَكِيمٍ حَمِيدٍ41.42 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪২। লা-ইয়াতীহিল্ বা-ত্বিলু মিম্ বাইনি ইয়াদাইহি অলা-মিন্ খল্ফিহ্; তান্যীলুম্ মিন্ হাকীমিন্ হামীদ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪২ বাতিল এতে অনুপ্ররবেশ করতে পারে না, না সামনে থেকে, না পিছন থেকে। এটি প্রজ্ঞাময়, সপ্রশংসিতের পক্ষ থেকে নাযিলকৃত। مَا يُقَالُ لَكَ إِلَّا مَا قَدْ قِيلَ لِلرُّسُلِ مِنْ قَبْلِكَ إِنَّ رَبَّكَ لَذُو مَغْفِرَةٍ وَذُو عِقَابٍ أَلِيمٍ41.43 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪৩। মা-ইয়ুক্ব-লু লাকা-ইল্লা-মা-ক্বদ্ ক্বীলা র্লিরুসুলি মিন্ ক্বব্লিক; ইন্না রব্বাকা লাযূ মাগ্ফিরাতিঁও অযূ ‘ইক্ব-বিন্ আলীম্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪৩ তোমাকে যা বলা হচ্ছে, তোমার পূর্ববর্তী রাসূলদেরকেও তাই বলা হয়েছিল। নিশ্চয় তোমার রব একান্তই ক্ষমাশীল এবং যন্ত্রণাদায়ক আযাব দাতা। وَلَوْ جَعَلْنَاهُ قُرْآنًا أَعْجَمِيًّا لَقَالُوا لَوْلَا فُصِّلَتْ آيَاتُهُ أَأَعْجَمِيٌّ وَعَرَبِيٌّ قُلْ هُوَ لِلَّذِينَ آمَنُوا هُدًى وَشِفَاءٌ وَالَّذِينَ لَا يُؤْمِنُونَ فِي آذَانِهِمْ وَقْرٌ وَهُوَ عَلَيْهِمْ عَمًى أُولَئِكَ يُنَادَوْنَ مِنْ مَكَانٍ بَعِيدٍ41.44 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪৪। অলাওজ্বা‘আল্না -হু ক্বর্ আ-নান্ আ’জ্বামিয়্যাল্ লাক্ব-লূ লাও লা-ফুছ্ছিলাত্ আ-ইয়াতুহ্; আ আ’জ্বামিইয়ুঁও অ ‘আরাবী; কুল্ হুঅ লিল্লাযীনা আ-মানূ হুদাঁও অ শিফা-য়্; অল্লাযীনা লা-ইয়ুমিনূনা ফী য় আ-যা-নিহিম্ অকরুঁও অহুওয়া ‘আলাইহিম্ ‘আমা; উলা-য়িকা ইয়ুনা -দাওনা মিম্ মাকা-নিম্ বা‘ঈদ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪৪ আর আমি যদি এটাকে অনারবী ভাষার কুরআন বানাতাম তবে তারা নিশ্চিতভাবেই বলত, ‘এর আয়াতসমূহ বিশদভাষায় বর্ণিত হয়নি কেন’? এটি অনারবী ভাষায় আর রাসূল আরবী ভাষী! বল, ‘এটি মুমিনদের জন্য হিদায়াত ও প্রতিষেধক। আর যারা ঈমান আনে না তাদের কানে রয়েছে বধিরতা আর কুরআন তাদের জন্য হবে অন্ধত্ব। তাদেরকেই ডাকা হবে দূরবর্তী স্থান থেকে। وَلَقَدْ آتَيْنَا مُوسَى الْكِتَابَ فَاخْتُلِفَ فِيهِ وَلَوْلَا كَلِمَةٌ سَبَقَتْ مِنْ رَبِّكَ لَقُضِيَ بَيْنَهُمْ وَإِنَّهُمْ لَفِي شَكٍّ مِنْهُ مُرِيبٍ41.45 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪৫। অলাক্বদ্ আ-তাইনা- মূসাল্ কিতা-বা ফাখ্তুলিফা ফীহ্; অলাওলা-কালিমাতুন্ সাবাক্বত্ র্মি রব্বিকা লাকুদ্বিয়া বাইনাহুম্; অইন্নাহুম্ লাফী শাক্কিম্ মিন্হু মুরী। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪৫ আর অবশ্যই আমি মূসাকে কিতাব দিয়েছিলাম। অতঃপর তাতে মতভেদ করা হয়। আর যদি তোমার রবের পক্ষ থেকে একটি বাণী পূর্বেই না হত, তবে এদের মধ্যে ফয়সালা হয়ে যেত। আর এরা নিশ্চয় সে সম্পকের্ বিভ্রান্তিকর সংশয়েই লিপ্ত রয়েছে। مَنْ عَمِلَ صَالِحًا فَلِنَفْسِهِ وَمَنْ أَسَاءَ فَعَلَيْهَا وَمَا رَبُّكَ بِظَلَّامٍ لِلْعَبِيدِ41.46 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪৬। মান্ ‘আমিলা ছোয়া-লিহান্ ফালিনাফ্সিহী অ মান্ আসা-য়া ফা‘আলাইহা-; অমা- রব্বুকা বিজোয়াল্লা- মিল্ লিল্‘আবীদ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪৬ যে সৎকমর্ করে সে তার নিজের জন্যই তা করে। আর যে অসৎকমর্ করে তা তার উপরই বর্তাবে। তোমার রব তাঁর বান্দাদের প্রতি মোটেই যালিম নন। إِلَيْهِ يُرَدُّ عِلْمُ السَّاعَةِ وَمَا تَخْرُجُ مِنْ ثَمَرَاتٍ مِنْ أَكْمَامِهَا وَمَا تَحْمِلُ مِنْ أُنْثَى وَلَا تَضَعُ إِلَّا بِعِلْمِهِ وَيَوْمَ يُنَادِيهِمْ أَيْنَ شُرَكَائِي قَالُوا آذَنَّاكَ مَا مِنَّا مِنْ شَهِيدٍ41.47 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪৭। ইলাইহি ইয়ুরাদ্দু ‘ইল্মুস্ সা-আ’হ্; অমা- তাখ্রুজু মিন্ ছামার-তিম্ মিন্ আক্মা-মিহা-অমা- তাহ্মিলু মিন্ উন্ছা-অলা-তাদ্বোয়া‘উ ইল্লা-বি‘ইল্মিহ্; অইয়াওমা ইয়ুনা-দীহিম্ আইনা শুরাকা-য়ী ক্ব-লূ য় আ-যান্না-কা মা-মিন্না-মিন্ শাহীদ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪৭ কিয়ামতের জ্ঞান তাঁরই দিকে প্রত্যাবর্তিত হয়। তাঁর অজ্ঞাতসারে আবরণ হতে ফলসমূহ বের হয় না, কোন নারী গভর্ধারণ করে না এবং সন্তান প্রসবও করে না এবং সেদিন যখন তিনি তাদেরকে আহবান করে বলবেন, ‘আমার শরীকরা কোথায়?’ তারা বলবে, ‘আমরা আপনাকে জানাচ্ছি যে, এ ব্যাপারে আমাদের থেকে কোন সাক্ষী নেই।’ وَضَلَّ عَنْهُمْ مَا كَانُوا يَدْعُونَ مِنْ قَبْلُ وَظَنُّوا مَا لَهُمْ مِنْ مَحِيصٍ41.48 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪৮। অদ্বোয়াল্লা ‘আন্হুম্ মা-কা-নূ ইয়াদ্‘ঊনা মিন্ ক্বব্লু অজোয়ান্নূ মা-লাহুম্ মিম্ মাহীছ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৪৮ আর পূবের্ যাদেরকে তারা ডাকত তারা তাদেও কাছ থেকে উধাও হয়ে যাবে এবং তারা বিশ্বাস করবে, তাদের পলায়নের কোন জায়গা নেই। لَا يَسْأَمُ الْإِنْسَانُ مِنْ دُعَاءِ الْخَيْرِ وَإِنْ مَسَّهُ الشَّرُّ فَيَئُوسٌ قَنُوطٌ41.49 আরবি উচ্চারণ ৪১.৪৯। লা-ইয়াস্য়ামুল্ ইন্সা-নু মিন্ দু‘আ-য়িল্ খইরি অইম্ মাস্সাহুশ্ র্শারু ফাইয়ায়ূসুন্ ক্ব-নূত্ব । বাংলা অনুবাদ ৪১.৪৯ কল্যাণ প্রার্থনায় মানুষ বিরক্ত হয় না; আর যদি অকল্যাণ তাকে স্পশ করে তাহলে সে নিরাশ ও হতাশ হয়ে পড়ে। وَلَئِنْ أَذَقْنَاهُ رَحْمَةً مِنَّا مِنْ بَعْدِ ضَرَّاءَ مَسَّتْهُ لَيَقُولَنَّ هَذَا لِي وَمَا أَظُنُّ السَّاعَةَ قَائِمَةً وَلَئِنْ رُجِعْتُ إِلَى رَبِّي إِنَّ لِي عِنْدَهُ لَلْحُسْنَى فَلَنُنَبِّئَنَّ الَّذِينَ كَفَرُوا بِمَا عَمِلُوا وَلَنُذِيقَنَّهُمْ مِنْ عَذَابٍ غَلِيظٍ 41.50 আরবি উচ্চারণ ৪১.৫০। অলায়িন্ আযাকনা-হু রহ্মাতাম্ মিন্না-মিম্ বা’দি দ্বোর্য়ার-য়া মাস্সাত্হু লাইয়াকুলান্না হা-যা-লী অমা য় আযুন্নূস্ সা-‘আতা ক্ব-য়িমাতাঁও অ লার্য়ি রুজ্বিতু ইলা-রব্বী য় ইন্না লী ‘ইন্দাহূ লাল্হুস্না- ফালানুনাব্বিয়ান্নাল্ লাযীনা কাফারূ বিমা-‘আমিলূ অলানুযীক্বান্নাহুম্ মিন্ ‘আযা-বিন্ গলীজ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৫০ আবার আমি যদি তাকে আপতিত অকল্যাণের পর রহমতের স্বাদ আস্বাদন করাই তখন সে অবশ্যই বলে থাকে, ‘এটি আমার প্রাপ্য, আমার মনে হয় না কিয়ামত হবে, আমাকে যদি আমার রবের কাছে ফিরিয়েও নেয়া হয় তবও তার কাছে আমার জন্য কল্যাণই থাকবে।’ (আল্লাহ বলেন) ‘আমি অবশ্যই কাফিরদেরকে তাদের আমল সম্পকে অবহিত করব এবং অবশ্যই তাদেরকে কঠিন আযাবের স্বাদ আস্বাদন করাব। وَإِذَا أَنْعَمْنَا عَلَى الْإِنْسَانِ أَعْرَضَ وَنَأَى بِجَانِبِهِ وَإِذَا مَسَّهُ الشَّرُّ فَذُو دُعَاءٍ عَرِيضٍ41.51 আরবি উচ্চারণ ৪১.৫১। অইযা য় আন্‘আম্না-‘আলাল্ ইন্সা-নি আ’রাদ্বোয়া অনায়া-বিজ্বা-নিবিহী অইযা-মাস্সাহুশ্ র্শারু ফাযূ দু‘আ-য়িন্ ‘আরীদ্ব্ । বাংলা অনুবাদ ৪১.৫১ আর যখন আমি মানুষের প্রতি অনগু ্রহ করি তখন সে বিমুখ হয় এবং দূরে সরে যায়; আর যখন অকল্যাণ তাকে স্পশর্ করে তখন সে দীঘর্ দোআকারী হয়। قُلْ أَرَأَيْتُمْ إِنْ كَانَ مِنْ عِنْدِ اللَّهِ ثُمَّ كَفَرْتُمْ بِهِ مَنْ أَضَلُّ مِمَّنْ هُوَ فِي شِقَاقٍ بَعِيدٍ41.52 আরবি উচ্চারণ ৪১.৫২। কুল্ আরয়াইতুম্ ইন্ কা-না মিন্ ‘ইন্দিল্লা-হি ছুম্মা কার্ফাতুম্ বিহী মান্ আদ্বোয়াল্ল ূ মিম্মান্ হুঅ ফী শিক্ব-ক্বিম্ বা‘ঈদ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৫২ বল, ‘তোমরা কি লক্ষ্য করেছ, তা যদি (কুরআন) আল্লাহর কাছ থেকে এসে থাকে আর তোমরা তা অস্বীকার কর, তবে যে ব্যক্তি ঘোর বিরোধিতায় লিপ্ত তার চেয়ে অধিক ভ্রষ্ট আর কে’? سَنُرِيهِمْ آيَاتِنَا فِي الْآفَاقِ وَفِي أَنْفُسِهِمْ حَتَّى يَتَبَيَّنَ لَهُمْ أَنَّهُ الْحَقُّ أَوَلَمْ يَكْفِ بِرَبِّكَ أَنَّهُ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ شَهِيدٌ41.53 আরবি উচ্চারণ ৪১.৫৩। সানুরী হিম্ আ-ইয়া-তিনা-ফিল্ আ-ফা-ক্বি অফী য় আন্ফুসিহিম্ হাত্তা-ইয়াতাবাইয়্যানা লাহুম্ আন্নাহুল্ হাক্ব্; আওয়ালাম্ ইয়াক্ফি বিরব্বিকা আন্নাহূ ‘আলা-কুল্লি শাইয়িন্ শাহীদ্। বাংলা অনুবাদ ৪১.৫৩ বিশ্বজগতে ও তাদের নিজদের মধ্যে আমি তাদেরকে আমার নিদর্শনাবলী দেখাব যাতে তাদের কাছে সুস্পষ্ট হয় যে, এটি (কুরআন) সত্য; তোমার রবের জন্য এটাই যথেষ্ট নয় কি যে, তিনি সকল বিষয়ে সাক্ষী? أَلَا إِنَّهُمْ فِي مِرْيَةٍ مِنْ لِقَاءِ رَبِّهِمْ أَلَا إِنَّهُ بِكُلِّ شَيْءٍ مُحِيطٌ 41.54 আরবি উচ্চারণ ৪১.৫৪। আলা য় ইন্নাহুম্ ফী র্মিইয়াতিম্ মিল্লিক্ব-য়ি রব্বিহিম্; আলা য় ইন্নাহূ বিকুল্লি শাইয়িম্ মুহীত্ব। বাংলা অনুবাদ ৪১.৫৪ জেনে রাখ, নিশ্চয় তারা তাদের রবের সাক্ষাতের বিষয়ে সন্দেহে রয়েছে; জেনে রাখ, নিশ্চয় তিনি সবকিছুকে পরিবেষ্টন করে আছেন।

About Abdul Latif Sheikh

Check Also

idf image

সুরা আল ইমরান আয়াত ১০২-১০৫ এর তাফসির

یٰۤاَیُّهَا الَّذِیۡنَ اٰمَنُوا اتَّقُوا اللّٰهَ حَقَّ تُقٰتِهٖ وَ لَا تَمُوۡتُنَّ اِلَّا وَ اَنۡتُمۡ مُّسۡلِمُوۡنَ  وَ …

সুরা ইখলাস এর ফযিলত

সুরা আন আনফাল

সুরা আন আনফাল নামের অর্থঃ যুদ্ধ লব্ধ সম্পদ শ্রেনীঃ মাদানী সুরা ক্রমঃ ৮ আয়াত সংখ্যাঃ …

সুরা ইখলাস এর ফযিলত

সূরা আত-তাওবাহ্‌

সূরা আত-তাওবাহ্‌ শ্রেণীঃ মাদানীনামের অর্থঃ অনুশোচনাঅন্য নামঃ আল-বারাহ্ (শাস্তি থেকে অব্যাহতি) সূরার ক্রমঃ ৯আয়াতের সংখ্যাঃ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.