Thursday , March 23 2023

সূরা আত-তাওবাহ্‌

সূরা আত-তাওবাহ্‌

শ্রেণীঃ মাদানী
নামের অর্থঃ অনুশোচনা
অন্য নামঃ আল-বারাহ্ (শাস্তি থেকে অব্যাহতি)

সূরার ক্রমঃ ৯
আয়াতের সংখ্যাঃ ১২৯
পারার ক্রমঃ ১০ থেকে ১১
মঞ্জিল নংঃ ১৯ থেকে ২১
রুকুর সংখ্যাঃ ১৬
সিজদাহ্‌র সংখ্যাঃ নেই

← পূর্ববর্তী সূরা সূরা আল-আনফাল
পরবর্তী সূরা → সূরা ইউনুস

বৈশিষ্ট্যঃ বিসমিল্লাহ-হীনতা

এই সূরার বৈশিষ্ট্য হলো এর শুরুতে বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম লেখা হয় না। কারণ কোরআন শরীফের বিভিন্ন অংশ ২৩ বছরের দীর্ঘ পরিসরে অবতীর্ণ হয়েছিল। কখনও একটি পূর্ণাঙ্গ সূরাও ভেঙে ভেঙে অবতীর্ণ হতো। জিব্রাইল (আ:) তা কোথায় বসাতে হবে, তা বলে দিতেন। যখন বিসমিল্লাহ অবতীর্ণ হতো তখন বোঝা যেত, আগের সূরার অবতরণ শেষ হয়েছে। কিন্তু সূরা তওবা অবতরণে কোনো বিসমিল্লাহ অবতীর্ণ হয়নি এবং রাসুল(সা:)ও তা লিখে যেতে নির্দেশ দেননি। এই অবস্থায় রাসুল(সা:) মৃত্যুবরণ করেন। পরবর্তিতে খলীফা ওসমান গনী [রাঃ] বিসমিল্লাহ দেখতে না পেয়ে একে অন্য সূরার অন্তর্ভুক্ত মনে করেন। অনেকে একে সূরা আনফালের অংশ মনে করেন। তাই আয়াত-সংখ্যার দিক দিয়ে বেশি হওয়াসত্ত্বেয় সাবধানতার খাতিরে কোরআন সংকলনের সময় একে সূরা আনফালের পরে স্থান দেয়া হয়েছে

যেহেতু অবতরণের সময়ই এর শুরুতে বিসমিল্লাহ ছিল না, তাই বিজ্ঞ ‘আলেমদের বক্তব্য হলো, কেউ যদি সূরা আনফালের পরে সূরা তওবা পড়ে, তাহলে সে বিসমিল্লাহ পড়বে না; তবে কেউ যদি পরম্পরাহীনভাবে সূরা তওবাই প্রথমে পড়ে, তাহলে বিসমিল্লাহ জুড়ে নিবে। অনেকে বিসমিল্লাহ’র বদলে ‘আঊযুবিল্লা-হি মিন না-র পড়ে থাকেন, যার কোনো ভিত্তি কোনো বিশুদ্ধ হাদিস থেকে প্রমাণিত নয়

অবিশ্বাসীদের সাথে সম্পর্কের আলোচনাঃ
সূরা তওবার সর্বত্র কিছু যুদ্ধ (মক্কা বিজয়, হোনাইন যুদ্ধ, তাবুক যুদ্ধ), যুদ্ধ সংক্রান্ত ঘটনাবলী এবং এসংক্রান্ত হুকুম, মাসায়েল ইত্যাদির বর্ণনা রয়েছে। এসকল যুদ্ধের প্রেক্ষিতে আরবের সকল গোত্রের সাথে সকল চুক্তি বাতিলের নির্দেশ আসে।

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ
আরবি উচ্চারণ বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম
বাংলা অনুবাদ পরম করুণাময় অতি দয়ালু আল্লাহর নামে (শুরু করছি)।

وَالسَّابِقُونَ الْأَوَّلُونَ مِنَ الْمُهَاجِرِينَ وَالْأَنْصَارِ وَالَّذِينَ اتَّبَعُوهُمْ بِإِحْسَانٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمْ وَرَضُوا عَنْهُ وَأَعَدَّ لَهُمْ جَنَّاتٍ تَجْرِي تَحْتَهَا الْأَنْهَارُ خَالِدِينَ فِيهَا أَبَدًا ذَلِكَ الْفَوْزُ الْعَظِيمُ9.100

আরবি উচ্চারণ
৯.১০০। অস্সা-বিকুনাল্ আওয়্যালূনা মিনাল্ মুহা-জ্বিরীনা অল্ আন্ছোয়া-রি অল্লাযীনাত্ তাবা‘ঊহুম্ বিইহ্সা-র্নি রাদ্বিয়াল্লা-হু ‘আন্হুম্ অরাদ্বূ আন্হু অ‘আদ্দা লাহুম্ জ্বান্না-তিন্ তাজরী তাহ্তাহাল্ আন্হা-রু খ-লিদীনা ফীহা য় আবাদা-; যা-লিকাল্ ফাওযুল্ ‘আজীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০০ আর মুহাজির ও আনসারদের মধ্যে যারা প্রথম ও অগ্রগামী এবং যারা তাদেরকে অনুসরণ করেছে সুন্দরভাবে, আল্লাহ্ তাদের প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছেন আর তারাও আল্লাহর প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছে। আর তিনি তাদের জন্য প্রস্তুত করেছেন জান্নাতসমূহ, যার তলদেশে নদী প্রবাহিত, তারা সেখানে চিরস্থায়ী হবে। এটাই মহাসাফল্য।

وَمِمَّنْ حَوْلَكُمْ مِنَ الْأَعْرَابِ مُنَافِقُونَ وَمِنْ أَهْلِ الْمَدِينَةِ مَرَدُوا عَلَى النِّفَاقِ لَا تَعْلَمُهُمْ نَحْنُ نَعْلَمُهُمْ سَنُعَذِّبُهُمْ مَرَّتَيْنِ ثُمَّ يُرَدُّونَ إِلَى عَذَابٍ عَظِيمٍ 9.101

আরবি উচ্চারণ
৯.১০১। অমিম্মান্ হাওলাকুম্ মিনাল্ আ’র-বি মুনা-ফিকুন্; অমিন্ আহ্লিল্ মাদীনাতি মারাদূ ‘আলান্ নিফা-ক্বি লা-তা’লামুহুম্; নাহ্নু না’লামুহুম্; সানু‘আয্যিবুহুম্ র্মারাতাইনি ছুম্মা ইয়ুরাদ্দূনা ইলা-‘আযা-বিন্ ‘আজীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০১ আর তোমাদের আশপাশের মরুবাসীদের মধ্যে কিছু লোক মুনাফিক এবং মদীনাবাসীদের মধ্যেও কিছু লোক অতিমাত্রায় মুনাফিকীতে লিপ্ত আছে। তুমি তাদেরকে জান না। আমি তাদেরকে জানি। অচিরে আমি তাদেরকে দু’বার আযাব দেব তারপর তাদেরকে ফিরিয়ে নেয়া হবে মহাআযাবের দিকে।

وَآخَرُونَ اعْتَرَفُوا بِذُنُوبِهِمْ خَلَطُوا عَمَلًا صَالِحًا وَآخَرَ سَيِّئًا عَسَى اللَّهُ أَنْ يَتُوبَ عَلَيْهِمْ إِنَّ اللَّهَ غَفُورٌ رَحِيمٌ9.102

আরবি উচ্চারণ
৯.১০২। অ আ-খারূনা, তারাফূ বিযুনূবিহিম্ খালাত্বু ‘আমালান্ ছোয়া-লিহাওঁ অআ-খারা সাইয়্যিয়া-; ‘আসাল্লা-হু আইঁ ইয়াতূবা ‘আলাইহিম্ ইন্নাল্লা-হা গাফূর্রু রহীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০২ আর অন্য কিছু লোক তাদের অপরাধ স্বীকার করেছে, সৎকর্মের সঙ্গে তারা অসৎকর্মের মিশ্রণ ঘটিয়েছে। আশা করা যায়, আল্লাহ্ তাদের তাওবা কবূল করবেন। নিশ্চয় আল্লাহ অতি ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।

خُذْ مِنْ أَمْوَالِهِمْ صَدَقَةً تُطَهِّرُهُمْ وَتُزَكِّيهِمْ بِهَا وَصَلِّ عَلَيْهِمْ إِنَّ صَلَاتَكَ سَكَنٌ لَهُمْ وَاللَّهُ سَمِيعٌ عَلِيمٌ9.103

আরবি উচ্চারণ
৯.১০৩। খুয্ মিন্ আমওয়া-লিহিম্ ছদাক্বাতান্ তুত্বোয়াহ্হিরুহুম্ অতুযাক্কীহিম্ বিহা- অছোয়াল্লি ‘আলাইহিম্; ইন্না ছলা-তাকা সাকানুল্লাহুম্; অল্লা-হু সামী‘ঊন ‘আলীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০৩ তাদের সম্পদ থেকে সদাকা নাও। এর মাধ্যমে তাদেরকে তুমি পবিত্র ও পরিশুদ্ধ করবে। আর তাদের জন্য দো‘আ কর, নিশ্চয় তোমার দো‘আ তাদের জন্য প্রশান্তিকর। আর আল্লাহ্ সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞ।

أَلَمْ يَعْلَمُوا أَنَّ اللَّهَ هُوَ يَقْبَلُ التَّوْبَةَ عَنْ عِبَادِهِ وَيَأْخُذُ الصَّدَقَاتِ وَأَنَّ اللَّهَ هُوَ التَّوَّابُ الرَّحِيمُ 9.104

আরবি উচ্চারণ
৯.১০৪। আলাম্ ইয়া’লামূয় আন্নাল্লা-হা হুঅ ইয়াক্ববালুত তাওবাতা ‘আন ‘ইবা-দিহী অইয়া খুযুছ্ ছদাক্ব-তি অআন্নাল্লা-হা হুঅত্ তাওয়্যা-র্বু রহীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০৪ তারা কি জানে না যে, নিশ্চয় আল্লাহ তাঁর বান্দাদের তাওবা কবূল করেন এবং সদাকা গ্রহণ করেন। আর নিশ্চয় আল্লাহ তাওবা কবূলকারী, পরম দয়ালু।

وَقُلِ اعْمَلُوا فَسَيَرَى اللَّهُ عَمَلَكُمْ وَرَسُولُهُ وَالْمُؤْمِنُونَ وَسَتُرَدُّونَ إِلَى عَالِمِ الْغَيْبِ وَالشَّهَادَةِ فَيُنَبِّئُكُمْ بِمَا كُنْتُمْ تَعْمَلُونَ9.105

আরবি উচ্চারণ
৯.১০৫। অকুলি’মালূ ফাসা ইয়ারল্লা-হু ‘আমালাকুম্ অরসূলুহূ অল্ মু মিনূন্; অ-সাতুরদ্দূনা ইলা‘আ-লিমিল্ গাইবি অশ্ শাহা-দাতি ফাইয়ুনাব্বিউকুম্ বিমা-কুনতুম্ তা’মালূন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০৫ আর বল, ‘তোমরা আমল কর। অতএব, অচিরেই আল্লাহ্ তোমাদের আমল দেখবেন, তাঁর রাসূল ও মুমিনগণও। আর অচিরেই তোমাদেরকে ফিরিয়ে নেয়া হবে গায়েব ও প্রকাশ্যের পরিজ্ঞাতার নিকট। অতঃপর তিনি তোমাদেরকে জানাবেন যা তোমরা আমল করতে সে সম্পর্কে’।

وَآخَرُونَ مُرْجَوْنَ لِأَمْرِ اللَّهِ إِمَّا يُعَذِّبُهُمْ وَإِمَّا يَتُوبُ عَلَيْهِمْ وَاللَّهُ عَلِيمٌ حَكِيمٌ9.106

আরবি উচ্চারণ
৯.১০৬। অআ-খারূনা র্মুজ্বাওনা লিআম্রিল্লা-হি ইম্মা-ইয়ু‘আয্যিবুহুম্ অইম্মা-ইয়াতূবু ‘আলাইহিম্ অল্লা-হু ‘আলীমুন্ হাকীম্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০৬ আর আল্লাহর আদেশের অপেক্ষায় অপর কিছু লোকের সিদ্ধান্ত পিছিয়ে দেয়া হলো। তিনি তাদেরকে আযাব দেবেন নয়তো তাদের তাওবা কবূল করবেন। আর আল্লাহ্ সর্বজ্ঞ, প্রজ্ঞাময়।

وَالَّذِينَ اتَّخَذُوا مَسْجِدًا ضِرَارًا وَكُفْرًا وَتَفْرِيقًا بَيْنَ الْمُؤْمِنِينَ وَإِرْصَادًا لِمَنْ حَارَبَ اللَّهَ وَرَسُولَهُ مِنْ قَبْلُ وَلَيَحْلِفُنَّ إِنْ أَرَدْنَا إِلَّا الْحُسْنَى وَاللَّهُ يَشْهَدُ إِنَّهُمْ لَكَاذِبُونَ9.107

আরবি উচ্চারণ
৯.১০৭। অল লাযীনাত্তাখাযূ মাস্জ্বিদান দ্বিরা-রাওঁ অকুফ্রাওঁ অতাফ্রীক্বাম্ বাইনাল্ মুমিনীনা অর্ইছোয়া-দাল্ লিমান্ হা-রবাল্লা-হা অরসূলাহূ মিন্ ক্বব্ল্; অলা ইয়াহ্লিফুন্না ইন্ আরদ্না য় ইল্লাল্ হুস্না-; অল্লা-হু ইয়াশ্হাদু ইন্নাহুম্ লাকা-যিবূন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০৭ আর যারা মসজিদ বানিয়েছে ক্ষতিসাধন, কুফরী ও মুমিনদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির উদ্দেশ্যে এবং ইতঃপূর্বে আল্লাহ্ ও তাঁর রাসূলের বিরুদ্ধে যে লড়াই করেছে তার ঘাঁটি হিসেবে। আর তারা অবশ্যই শপথ করবে যে, ‘আমরা কেবল ভাল চেয়েছি’। আর আল্লাহ্ সাক্ষ্য দিচ্ছেন যে, তারা অবশ্যই মিথ্যাবাদী।

لَا تَقُمْ فِيهِ أَبَدًا لَمَسْجِدٌ أُسِّسَ عَلَى التَّقْوَى مِنْ أَوَّلِ يَوْمٍ أَحَقُّ أَنْ تَقُومَ فِيهِ فِيهِ رِجَالٌ يُحِبُّونَ أَنْ يَتَطَهَّرُوا وَاللَّهُ يُحِبُّ الْمُطَّهِّرِينَ9.108

আরবি উচ্চারণ
৯.১০৮। লা-তাকুম্ ফীহি আবাদা-; লামাস্জ্বিদুন্ উস্সিসা ‘আলাত্তাক্বঅ-মিন্ আওয়্যালি ইয়াওমিন্ আহাক্বকু আন্ তাক্বমা ফীহ্; ফীহি রিজ্বা-লুইঁ ইয়ুহিব্বূনা আইঁ ইয়াতাত্বোয়াহ্হারূ; অল্লা-হু ইয়ুহিব্বুল মুত্ত্বোয়াহ্হিরীন।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০৮ তুমি সেখানে কখনো (সালাত কায়েম করতে) দাঁড়িও না। অবশ্যই যে মসজিদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে তাকওয়ার উপর প্রথম দিন থেকে তা বেশী হকদার যে, তুমি সেখানে সালাত কায়েম করতে দাঁড়াবে। সেখানে এমন লোক আছে, যারা উত্তমরূপে পবিত্রতা অর্জন করতে ভালবাসে। আর আল্লাহ্ পবিত্রতা অর্জনকারীদের ভালবাসেন।

أَفَمَنْ أَسَّسَ بُنْيَانَهُ عَلَى تَقْوَى مِنَ اللَّهِ وَرِضْوَانٍ خَيْرٌ أَمْ مَنْ أَسَّسَ بُنْيَانَهُ عَلَى شَفَا جُرُفٍ هَارٍ فَانْهَارَ بِهِ فِي نَارِ جَهَنَّمَ وَاللَّهُ لَا يَهْدِي الْقَوْمَ الظَّالِمِينَ9.109

আরবি উচ্চারণ
৯.১০৯। আফামান্ আস্সাসা বুন্ইয়া-নাহূ ‘আলা-তাক্বঅ- মিনাল্লা-হি অরিদ্ব ওয়া-নিন্ খাইরুন্ আম্ মান্ আস্সাসা বুন্ইয়া-নাহূ ‘আলা- শাফা-জুরুফিন্ হা-রিন্ ফানহা-রা বিহী ফী না-রি জ্বাহান্নাম্; অল্লা-হু লা-ইয়াহ্দিল্ ক্বওমাজ্জোয়া-লিমীন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১০৯ যে তার গৃহের ভিত্তি আল্লাহর তাকওয়া ও সন্তুষ্টির উপর প্রতিষ্ঠা করল, সে কি উত্তম না ঐ ব্যক্তি যে তার গৃহের ভিত্তি প্রতিষ্ঠা করেছে এক গর্তের পতনোন্মুখ কিনারায়? অতঃপর তাকে নিয়ে তা ধসে পড়ল জাহান্নামের আগুনে। আর আল্লাহ্ যালিম কওমকে হিদায়াত দেন না।

لَا يَزَالُ بُنْيَانُهُمُ الَّذِي بَنَوْا رِيبَةً فِي قُلُوبِهِمْ إِلَّا أَنْ تَقَطَّعَ قُلُوبُهُمْ وَاللَّهُ عَلِيمٌ حَكِيمٌ9.110

আরবি উচ্চারণ
৯.১১০। লা-ইয়াযা-লু বুন্ইয়া-নু হুমুল্লাযী বানাও রীবাতান্ ফী কুলূবিহিম্ ইল্লা য় আন্ তাক্বাত্ত্বো‘আ কুলূবুহুম; অল্লা-হু ‘আলীমুন্ হাকীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১০ তাদের নির্মিত গৃহ, তাদের অন্তরে সন্দেহের কারণ হয়ে থাকবে, যে পর্যন্ত না তাদের হৃদয় টুকরো টুকরো হয়ে যায়। আর আল্লাহ্ সর্বজ্ঞ, প্রজ্ঞাময়।

إِنَّ اللَّهَ اشْتَرَى مِنَ الْمُؤْمِنِينَ أَنْفُسَهُمْ وَأَمْوَالَهُمْ بِأَنَّ لَهُمُ الْجَنَّةَ يُقَاتِلُونَ فِي سَبِيلِ اللَّهِ فَيَقْتُلُونَ وَيُقْتَلُونَ وَعْدًا عَلَيْهِ حَقًّا فِي التَّوْرَاةِ وَالْإِنْجِيلِ وَالْقُرْآنِ وَمَنْ أَوْفَى بِعَهْدِهِ مِنَ اللَّهِ فَاسْتَبْشِرُوا بِبَيْعِكُمُ الَّذِي بَايَعْتُمْ بِهِ وَذَلِكَ هُوَ الْفَوْزُ الْعَظِيمُ9.111

আরবি উচ্চারণ
৯.১১১। ইন্নাল্লাহাশ্ তারা- মিনাল্ মুমিনীনা আন্ফুসাহুম অআম্ওয়া-লাহুম্ বিআন্না-লাহুমুল্ জ্বান্নাহ্; ইয়ুক্ব-তিলূনা ফী সাবীলিল্লা-হি ফাইয়াক্বতুলূনা অইয়ুক্বতালূন; অ’দান্ ‘আলাইহি হাক্বক্বান্ ফিত্তাওর-তি অল্ইন্জ্বীলি অল্ক্বরুআ-ন্; অমান আওফা-বি‘আহদিহী মিনাল্লা-হি ফাস্তাব্শিরূ বিবাই‘ই কুমুল্লাযী বা-ইয়া’তুম্ বিহ্; অযা-লিকা হঅল্ ফাওযুল্ ‘আজীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১১ নিশ্চয় আল্লাহ মুমিনদের থেকে তাদের জান ও মাল ক্রয় করে নিয়েছেন (এর বিনিময়ে) যে, তাদের জন্য রয়েছে জান্নাত। তারা আল্লাহর পথে লড়াই করে। অতএব তারা মারে ও মরে। তাওরাত, ইঞ্জিল ও কুরআনে এ সম্পর্কে সত্য ওয়াদা রয়েছে। আর নিজ ওয়াদা পূরণে আল্লাহর চেয়ে অধিক কে হতে পারে? সুতরাং তোমরা (আল্লাহর সংগে) যে সওদা করেছ, সে সওদার জন্য আনন্দিত হও এবং সেটাই মহাসাফল্য।

التَّائِبُونَ الْعَابِدُونَ الْحَامِدُونَ السَّائِحُونَ الرَّاكِعُونَ السَّاجِدُونَ الْآمِرُونَ بِالْمَعْرُوفِ وَالنَّاهُونَ عَنِ الْمُنْكَرِ وَالْحَافِظُونَ لِحُدُودِ اللَّهِ وَبَشِّرِ الْمُؤْمِنِينَ 9.112

আরবি উচ্চারণ
৯.১১২। আত্তা – য়িবূনাল্ ‘আ-বিদূনাল হা-মিদূনাস্ সা – য়িহূর্না র-কি‘উনাস্ সা-জ্বিদূনাল্ আ-মিরূনা বিল্মা’রূফি অন্না-হূনা ‘আনিল্ মুন্কারি অল্ হা-ফিজূনা লিহুদূদিল্লা-হ্; অবাশ্শিরিল্ মুমিনীন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১২ তারা তাওবাকারী, ইবাদাতকারী, আল্লাহর প্রশংসাকারী, সিয়াম পালনকারী, রুকূকারী, সিজ্দাকারী, সৎকাজের আদেশদাতা, অসৎকাজের নিষেধকারী এবং আল্লাহর নির্ধারিত সীমারেখা হেফাযতকারী। আর মুমিনদেরকে তুমি সুসংবাদ দাও।

مَا كَانَ لِلنَّبِيِّ وَالَّذِينَ آمَنُوا أَنْ يَسْتَغْفِرُوا لِلْمُشْرِكِينَ وَلَوْ كَانُوا أُولِي قُرْبَى مِنْ بَعْدِ مَا تَبَيَّنَ لَهُمْ أَنَّهُمْ أَصْحَابُ الْجَحِيمِ9.113

আরবি উচ্চারণ
৯.১১৩। মা-কা-না লিন্নাবিয়্যি অল্লাযীনা আ-মানূ য় আইঁ ইয়াস্তাগ্ফিরূ লিল্মুশ্রিকীনা অলাও কা-নূ য় ঊলী র্ক্ববা- মিম্ বা’দি মা- তাবাইয়্যানা লাহুম্ আন্নাহুম্ আছ্হা-বুল্ জ্বাহীম্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১৩ নবী ও মুমিনদের জন্য উচিত নয় যে, তারা মুশরিকদের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করবে। যদিও তারা আত্মীয় হয়। তাদের নিকট এটা স্পষ্ট হয়ে যাওয়ার পর যে, নিশ্চয় তারা প্রজ্বলিত আগুনের অধিবাসী।

وَمَا كَانَ اسْتِغْفَارُ إِبْرَاهِيمَ لِأَبِيهِ إِلَّا عَنْ مَوْعِدَةٍ وَعَدَهَا إِيَّاهُ فَلَمَّا تَبَيَّنَ لَهُ أَنَّهُ عَدُوٌّ لِلَّهِ تَبَرَّأَ مِنْهُ إِنَّ إِبْرَاهِيمَ لَأَوَّاهٌ حَلِيمٌ9.114

আরবি উচ্চারণ
৯.১১৪। অমা-কা-নাস্ তিগ্ফা-রু ইব্রা-হীমা লিআবীহি ইল্লা-‘আম্ মাও‘ই দাতিওঁ অ‘আদাহা য় ইয়্যা-হু ফালাম্মা-তাবাইয়্যানা লাহূয়আন্নাহূ ‘আদুওয়্যুল্লিল্লা-হি তার্বারায়া মিন্হু ইন্না ইব্রা-হীমা লাআওয়্যা-হুন্ হালীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১৪ নিজ পিতার জন্য ইবরাহীমের ক্ষমা প্রার্থনা তো ছিল একটি ওয়াদার কারণে, যে ওয়াদা সে তাকে দিয়েছিল। অতঃপর যখন তার নিকট স্পষ্ট হয়ে গেল যে, নিশ্চয় সে আল্লাহর শত্র“, সে তার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করল। নিশ্চয় ইবরাহীম ছিল অধিক প্রার্থনাকারী ও সহনশীল।

وَمَا كَانَ اللَّهُ لِيُضِلَّ قَوْمًا بَعْدَ إِذْ هَدَاهُمْ حَتَّى يُبَيِّنَ لَهُمْ مَا يَتَّقُونَ إِنَّ اللَّهَ بِكُلِّ شَيْءٍ عَلِيمٌ9.115

আরবি উচ্চারণ
৯.১১৫। অমা-কা-নাল্লা-হু লিইয়ুদ্বিল্লা ক্বওমাম্ বা’দা ইয্ হাদা-হুম্ হাত্তা-ইয়ুবাইয়্যিনা লাহুম্ মা-ইয়াত্তাকুন; ইন্নাল্লা-হা বিকুল্লি শাইয়িন্ ‘আলীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১৫ আর আল্লাহ এমন নন যে, তিনি কোন সম্প্রদায়কে হিদায়াত দানের পর তাদেরকে পথভ্রষ্ট করবেন। যতক্ষণ না তাদের জন্য সুস্পষ্টভাবে বর্ণনা করবেন, যা থেকে তারা সাবধান থাকবে। নিশ্চয় আল্লাহ প্রত্যেক বিষয়ে সর্বজ্ঞ।

إِنَّ اللَّهَ لَهُ مُلْكُ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ يُحْيِي وَيُمِيتُ وَمَا لَكُمْ مِنْ دُونِ اللَّهِ مِنْ وَلِيٍّ وَلَا نَصِيرٍ9.116

আরবি উচ্চারণ
৯.১১৬। ইন্নাল্লা-হা লাহূ মুল্কুস্ সামা-ওয়া-তি অল্ র্আদ্ব্; ইয়ুহ্য়ী অইয়ুমীত্; অমা-লাকুম মিন্ দূনিল্লা-হিমিওঁ অলিয়্যিওঁ অলা-নার্ছী।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১৬ নিশ্চয় আল্লাহ, তাঁর জন্যই আসমানসমূহ ও যমীনের রাজত্ব। তিনি জীবন দান করেন ও মৃত্যু ঘটান। আর আল্লাহ ছাড়া তোমাদের জন্য না আছে কোন অভিভাবক, না আছে কোন সাহায্যকারী।

لَقَدْ تَابَ اللَّهُ عَلَى النَّبِيِّ وَالْمُهَاجِرِينَ وَالْأَنْصَارِ الَّذِينَ اتَّبَعُوهُ فِي سَاعَةِ الْعُسْرَةِ مِنْ بَعْدِ مَا كَادَ يَزِيغُ قُلُوبُ فَرِيقٍ مِنْهُمْ ثُمَّ تَابَ عَلَيْهِمْ إِنَّهُ بِهِمْ رَءُوفٌ رَحِيمٌ9.117

আরবি উচ্চারণ
৯.১১৭। লাক্বত্ তা-বাল্লা-হু ‘আলান্নাবিয়্যি অল্মুহা-জ্বিরীনা অল্আন্ছোয়া-রিল্ লাযীনাত্ তাবা‘ঊহু ফী সা-‘আতিল্ ‘উস্রতি মিম্ বা’দি মা-কা-দা ইয়াযীগু কুলূবু ফারীক্বিঁম্ মিন্হুম্ ছুম্মা তা-বা ‘আলাইহিম্; ইন্নাহূ বিহিম্ রাঊর্ফু রাহীম্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১৭ অবশ্যই আল্লাহ নবী, মুহাজির ও আনসারদের তাওবা কবুল করলেন, যারা তার অনুসরণ করেছে সংকটপূর্ণ মুহূর্তে। তাদের মধ্যে এক দলের হৃদয় সত্যচ্যূত হওয়ার উপক্রম হবার পর। তারপর আল্লাহ্ তাদের তাওবা কবূল করলেন। নিশ্চয় তিনি তাদের প্রতি স্নেহশীল, পরম দয়ালু।

وَعَلَى الثَّلَاثَةِ الَّذِينَ خُلِّفُوا حَتَّى إِذَا ضَاقَتْ عَلَيْهِمُ الْأَرْضُ بِمَا رَحُبَتْ وَضَاقَتْ عَلَيْهِمْ أَنْفُسُهُمْ وَظَنُّوا أَنْ لَا مَلْجَأَ مِنَ اللَّهِ إِلَّا إِلَيْهِ ثُمَّ تَابَ عَلَيْهِمْ لِيَتُوبُوا إِنَّ اللَّهَ هُوَ التَّوَّابُ الرَّحِيمُ 9.118

আরবি উচ্চারণ
৯.১১৮। অ‘আলাছ্ ছালা-ছাতিল্ লাযীনা খুল্লিফূ; হাত্তা য় ইযা- দ্বোয়া-ক্বাত্ ‘আলাইহিমুল্ র্আদ্বু বিমা-রহুবাত্ অদ্বোয়া-ক্বাত্ ‘আলাইহিম্ আন্ফুসুহুম্ অজোয়ান্নূ য় আল্লা-মাল্জ্বায়া মিনাল্লা-হ্ ইল্লা য় ইলাইহ্; ছুম্মা তা-বা ‘আলাইহিম্ লিইয়াতূবূ ইন্নাল্লা-হা হুঅত তাওয়্যা-র্বু রহীম।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১৮ আর সে তিন জনের (তাওবা কবূল করলেন), যাদের বিষয়টি স্থগিত রাখা হয়েছিল। এমনকি পৃথিবী প্রশস্ত হওয়া সত্ত্বেও তাদের জন্য সংকীর্ণ হয়ে গিয়েছিল এবং তাদের নিকট তাদের জীবন দুর্বিসহ হয়ে উঠেছিল। আর তারা নিশ্চিত বুঝেছিল যে, আল্লাহর আযাব থেকে তিনি ছাড়া কোন আশ্রয়স্থল নেই। তারপর তিনি তাদের তাওবা কবুল করলেন, যাতে তারা তাওবায় স্থির থাকে। নিশ্চয় আল্লাহ তাওবা কবূলকারী, পরম দয়ালু।

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا اتَّقُوا اللَّهَ وَكُونُوا مَعَ الصَّادِقِينَ9.119

আরবি উচ্চারণ
৯.১১৯। ইয়া য় আইয়্যুহাল্লাযীনা আ-মানুত তাকুল্লা-হা অকূনূ মা‘আছ্ ছোয়া-দিক্বীন।

বাংলা অনুবাদ
৯.১১৯ হে মুমিনগণ, তোমরা আল্লাহর তাকওয়া অবলম্বন কর এবং সত্যবাদীদের সাথে থাক।

مَا كَانَ لِأَهْلِ الْمَدِينَةِ وَمَنْ حَوْلَهُمْ مِنَ الْأَعْرَابِ أَنْ يَتَخَلَّفُوا عَنْ رَسُولِ اللَّهِ وَلَا يَرْغَبُوا بِأَنْفُسِهِمْ عَنْ نَفْسِهِ ذَلِكَ بِأَنَّهُمْ لَا يُصِيبُهُمْ ظَمَأٌ وَلَا نَصَبٌ وَلَا مَخْمَصَةٌ فِي سَبِيلِ اللَّهِ وَلَا يَطَئُونَ مَوْطِئًا يَغِيظُ الْكُفَّارَ وَلَا يَنَالُونَ مِنْ عَدُوٍّ نَيْلًا إِلَّا كُتِبَ لَهُمْ بِهِ عَمَلٌ صَالِحٌ إِنَّ اللَّهَ لَا يُضِيعُ أَجْرَ الْمُحْسِنِينَ 9.120

আরবি উচ্চারণ
৯.১২০। মা-কা-না লি আহ্লিল্ মাদীনাতি অমান্ হাওলাহুম্ মিনাল্ আ’র-বি আইঁ ইয়াতাখাল্লাফূ র্আ রসূলিল্লা-হি অলা-ইর্য়াগবূ বিআন্ফুসিহিম্ ‘আন্ নাফ্সিহ্; যা-লিকা বিআন্নাহুম্ লা-ইয়ুছীবুহুম্ জোয়ামাউওঁ অলা-নাছোয়াবুওঁ অলা-মাখ্মাছোয়াতুন ফী সাবীলিল্লা-হি অলা- ইয়াত্বোয়াঊনা মাওত্বিয়াইঁ ইয়াগীজুল্ কুফ্ফা-রা অলা-ইয়ানা-লূনা মিন্ ‘আদুওয়্যিন্ নাইলান্ ইল্লা-কুতিবা লাহুম বিহী ‘আমালুন্ ছোয়া-লিহ্; ইন্নাল্লা-হা লা-ইয়্যুদ্বী‘উ আজরাল্ মুহ্সিনীন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২০ মদীনার অধিবাসী ও তার আশপাশের মরুবাসীদের জন্য সংগত নয় যে, রাসূলুল্লাহ থেকে পেছনে থেকে যাবে এবং রাসূলের জীবন অপেক্ষা নিজদের জীবনকে অধিক প্রিয় মনে করবে। এটা এ কারণে যে, তাদেরকে আল্লাহর পথে তৃষ্ণা, ক্লান্তি ও ক্ষুধায় আক্রান্ত করে এবং তাদের এমন পদক্ষেপ যা কাফিরদের ক্রোধ জন্মায় এবং শত্র“দেরকে তারা ক্ষতিসাধন করে, তার বিনিময়ে তাদের জন্য সৎকর্ম লিপিবদ্ধ করা হয়। নিশ্চয় আল্লাহ সৎকর্মশীলদের প্রতিদান নষ্ট করেন না।

وَلَا يُنْفِقُونَ نَفَقَةً صَغِيرَةً وَلَا كَبِيرَةً وَلَا يَقْطَعُونَ وَادِيًا إِلَّا كُتِبَ لَهُمْ لِيَجْزِيَهُمُ اللَّهُ أَحْسَنَ مَا كَانُوا يَعْمَلُونَ9.121

আরবি উচ্চারণ
৯.১২১। অলা-ইয়ুন্ফিকুনা নাফাক্বাতান্ ছোয়াগীরাতাওঁ অলা-কাবীরাতাওঁ অলা-ইয়াক্বত্বোয়া‘ঊনা ওয়া-দিইয়ান্ ইল্লা-কুতিবা লাহুম্ লিইয়াজযিয়া হুমুল্লা-হু আহ্সানা মা-কা-নূ ইয়া’মালূন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২১ আর তারা স্বল্প কিংবা অধিক যা-ই ব্যয় করে এবং অতিক্রম করে যে প্রান্তরই, তা তাদের জন্য লিখে দেয়া হয়, যাতে তারা যা আমল করত, আল্লাহ তাদেরকে তার চেয়ে উত্তম প্রতিদান দেন।

وَمَا كَانَ الْمُؤْمِنُونَ لِيَنْفِرُوا كَافَّةً فَلَوْلَا نَفَرَ مِنْ كُلِّ فِرْقَةٍ مِنْهُمْ طَائِفَةٌ لِيَتَفَقَّهُوا فِي الدِّينِ وَلِيُنْذِرُوا قَوْمَهُمْ إِذَا رَجَعُوا إِلَيْهِمْ لَعَلَّهُمْ يَحْذَرُونَ9.122

আরবি উচ্চারণ
৯.১২২। অমা-কা-নাল্ মুমিনূনা লিইয়ান্ফিরূ কা – ফ্ফাহ্; ফালাওলা নাফারা মিন্ কুল্লি র্ফিক্বতিম্ মিন্হুম্ ত্বোয়া-য়িফাতুল্ লিইয়াতাফাক্বক্বাহূ ফিদ দীনি অলিইয়ুন্যিরূ ক্বাওমাহুম্ ইযা-রাজা‘উ য় ইলাইহিম্ লা‘আল্লাহুম্ ইয়াহ্যারূন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২২ আর মুমিনদের জন্য সংগত নয় যে, তারা সকলে একসঙ্গে অভিযানে বের হবে। অতঃপর তাদের প্রতিটি দল থেকে কিছু লোক কেন বের হয় না, যাতে তারা দীনের গভীর জ্ঞান আহরণ করতে পারে এবং আপন সম্প্রদায় যখন তাদের নিকট প্রত্যাবর্তন করবে, তখন তাদেরকে সতর্ক করতে পারে, যাতে তারা (গুনাহ থেকে) বেঁচে থাকে।

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا قَاتِلُوا الَّذِينَ يَلُونَكُمْ مِنَ الْكُفَّارِ وَلْيَجِدُوا فِيكُمْ غِلْظَةً وَاعْلَمُوا أَنَّ اللَّهَ مَعَ الْمُتَّقِينَ 9.123

আরবি উচ্চারণ
৯.১২৩। ইয়া য় আইয়্যুহাল্ লাযীনা আ-মানূ ক্বা-তিলুল্লাযীনা ইয়ালূনাকুম্ মিনাল্ কুফ্ফা-রি অল্ইয়াজ্বিদূ ফীকুম্ গিল্জোয়াহ্; অ’লামূ য় আন্নাল্লা-হা মা‘আল্ মুত্তাক্বীন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২৩ হে মুমিনগণ, তোমরা তোমাদের নিকটবর্তী কাফিরদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ কর। এবং তারা যেন তোমাদের মধ্যে কঠোরতা দেখতে পায়। আর জেনে রাখ, আল্লাহ মুত্তাকীদের সাথে আছেন।

وَإِذَا مَا أُنْزِلَتْ سُورَةٌ فَمِنْهُمْ مَنْ يَقُولُ أَيُّكُمْ زَادَتْهُ هَذِهِ إِيمَانًا فَأَمَّا الَّذِينَ آمَنُوا فَزَادَتْهُمْ إِيمَانًا وَهُمْ يَسْتَبْشِرُونَ9.124

আরবি উচ্চারণ
৯.১২৪। অইযা- মা য় উন্যিলাত্ সূরাতুন ফামিন্হুম মাইঁ ইয়াকুলু আইয়্যুকুম্ যা-দাত্হু হা-যিহী য় ঈমা-নান্ ফাআম্মাল্লাযীনা আ-মানূ ফাযা-দাত্হুম্ ঈমা-নাওঁ অহুম্ ইয়াস্তাব্শিরূন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২৪ আর যখনই কোন সূরা নাযিল করা হয়, তখন তাদের কেউ কেউ বলে, ‘এটি তোমাদের কার ঈমান বৃদ্ধি করল’? অতএব যারা মুমিন, নিশ্চয় তা তাদের ঈমান বৃদ্ধি করেছে এবং তারা আনন্দিত হয়।

وَأَمَّا الَّذِينَ فِي قُلُوبِهِمْ مَرَضٌ فَزَادَتْهُمْ رِجْسًا إِلَى رِجْسِهِمْ وَمَاتُوا وَهُمْ كَافِرُونَ9.125

আরবি উচ্চারণ
৯.১২৫। অআম্মাল্লাযীনা ফী কুলূবিহিম্ মারাদ্বুন্ ফাযা-দাত্হুম রিজসান্ ইলা-রিজসিহিম্ অমা-তূ অহুম্ কা-ফিরূন।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২৫ আর যাদের অন্তরে ব্যাধি রয়েছে, এটি তাদের অপবিত্রতার সাথে অপবিত্রতা বৃদ্ধি করে এবং তারা মারা যায় কাফির অবস্থায়।

أَوَلَا يَرَوْنَ أَنَّهُمْ يُفْتَنُونَ فِي كُلِّ عَامٍ مَرَّةً أَوْ مَرَّتَيْنِ ثُمَّ لَا يَتُوبُونَ وَلَا هُمْ يَذَّكَّرُونَ9.126

আরবি উচ্চারণ
৯.১২৬। আঅলা-ইয়ারাওনা আন্নাহুম্ ইয়ুফ্তানূনা ফী কুল্লি ‘আ-মিম্ র্মারতান্ আও র্মারতাইনি ছুম্মা লা-ইয়াতূবূনা অলা-হুম্ ইয়ায্যাক্কারূন।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২৬ তারা কি দেখে না যে, তারা প্রতি বছর এক বার কিংবা দু’বার বিপদগ্রস্ত হয় ? এর পরও তারা তাওবা করে না এবং উপদেশ গ্রহণ করে না।

وَإِذَا مَا أُنْزِلَتْ سُورَةٌ نَظَرَ بَعْضُهُمْ إِلَى بَعْضٍ هَلْ يَرَاكُمْ مِنْ أَحَدٍ ثُمَّ انْصَرَفُوا صَرَفَ اللَّهُ قُلُوبَهُمْ بِأَنَّهُمْ قَوْمٌ لَا يَفْقَهُونَ9.127

আরবি উচ্চারণ
৯.১২৭। অইযা-মা য় উন্যিলাত্ সূরাতুন্ নাজোয়ারা বা’দ্বুহুম্ ইলা-বা’দ্ব্; হাল্ ইয়ারা-কুম্ মিন্ আহাদিন ছুম্মান্ ছোয়ারাফূ; ছোয়ারাফাল্লা-হু কুলূবাহুম বিআন্নাহুম্ ক্বওমুল্ লা-ইয়াফ্ক্বহূন্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২৭ আর যখনই কোন সূরা নাযিল করা হয়, তারা একে অপরের দিকে তাকায়। (এবং বলে) ‘তোমাদেরকে কি কেউ দেখছে’? অতঃপর তারা (চুপিসারে) প্রস্থান করে। আল্লাহ তাদের হৃদয়কে সত্যবিমুখ করে দেন। এ কারণে যে, তারা বোধশক্তিহীন কওম।

لَقَدْ جَاءَكُمْ رَسُولٌ مِنْ أَنْفُسِكُمْ عَزِيزٌ عَلَيْهِ مَا عَنِتُّمْ حَرِيصٌ عَلَيْكُمْ بِالْمُؤْمِنِينَ رَءُوفٌ رَحِيمٌ9.128

আরবি উচ্চারণ
৯.১২৮। লাক্বদ্ জ্বা – য়াকুম্ রসূলুম্ মিন আনফুসিকুম্ ‘আযীযুন্ ‘আলাইহি মা-‘আনিত্তুম্ হারীছুন ‘আলাইকুম্ বিল্মুমিনীনা রাঊর্ফু রহীম্।

বাংলা অনুবাদ
৯.১২৮ নিশ্চয় তোমাদের নিজদের মধ্য থেকে তোমাদের নিকট একজন রাসূল এসেছেন, তা তার জন্য কষ্টদায়ক যা তোমাদেরকে পীড়া দেয়। তিনি তোমাদের কল্যাণকামী, মুমিনদের প্রতি স্নেহশীল, পরম দয়ালু।

فَإِنْ تَوَلَّوْا فَقُلْ حَسْبِيَ اللَّهُ لَا إِلَهَ إِلَّا هُوَ عَلَيْهِ تَوَكَّلْتُ وَهُوَ رَبُّ الْعَرْشِ الْعَظِيمِ 9.129

আরবি উচ্চারণ
৯.১২৯। ফাইন তাঅল্লাও ফাকুল্ হাস্বিয়াল্লা-হু লা য় ইলা-হা ইল্লা-হূ; ‘আলাইহি তাওয়াক্কাল্তু অহুঅ রব্বুল ‘র্আশিল্ ‘আজীম।

About Abdul Latif Sheikh

Check Also

idf image

সুরা আল ইমরান আয়াত ১০২-১০৫ এর তাফসির

یٰۤاَیُّهَا الَّذِیۡنَ اٰمَنُوا اتَّقُوا اللّٰهَ حَقَّ تُقٰتِهٖ وَ لَا تَمُوۡتُنَّ اِلَّا وَ اَنۡتُمۡ مُّسۡلِمُوۡنَ  وَ …

সুরা ইখলাস এর ফযিলত

সুরা আন আনফাল

সুরা আন আনফাল নামের অর্থঃ যুদ্ধ লব্ধ সম্পদ শ্রেনীঃ মাদানী সুরা ক্রমঃ ৮ আয়াত সংখ্যাঃ …

সুরা ইখলাস এর ফযিলত

সুরা ইউনুছ

সুরা ইউনুছ সুরা ক্রমঃ ১০ নামের অর্থঃ নবী ইউনুছ শ্রেণীঃ মাক্কী আয়াত সংখ্যাঃ ১০৯ পূর্ববর্তী …

Leave a Reply

Your email address will not be published.